, , ,
h9090
ব্রেকিং নিউজ
  • বরিশালে বিএনপি’র মিছিলে পুলিশের বাধা
  • বরিশালে শিক্ষকদের প্রতিবাদ সভা
  • হিজলায় এক রাতে তিন ঘরে ডাকাতি
  • উজিরপুরে সন্ধ্যা নদীতে ৩ লক্ষাধীক টাকার অবৈধ জাল আটক
  • বাকেরগঞ্জে ইয়াবাসহ আটক -১

Notice: Undefined variable: dexc in /home/barisalmail24/public_html/wp-content/themes/newspaper.bak/inc/retrive_functions.php on line 279

Notice: Undefined variable: cexc in /home/barisalmail24/public_html/wp-content/themes/newspaper.bak/inc/retrive_functions.php on line 282
Add
Tuesday, August 9, 2016 12:04 pm
A- A A+ Print

স্টীমার-লঞ্চের সংঘর্ষের ৩৬ দিন পর তদন্ত কমিটি বরিশালে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিআইডব্লিউটিসি’র পিএস মাহসুদ ও এমভি সুরভী-৭ লঞ্চের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনার ৩৬ দিন পর ঘটনার তদন্তে বরিশালে এসেছেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয়ের তদন্ত কমিটি। গতকাল মঙ্গলবার মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব ও তদন্ত কমিটির আহবায়ক মো. নূর-উর-রহমানের নেতৃত্বে ৭ সদস্যের তদন্ত টিম বরিশাল সার্কিট হাউজে গণশুনানীর আয়োজন করে। তবে প্রচার প্রচারণার অভাবে স্বাক্ষ্য দিয়েছেন মাত্র একজন ক্ষতিগ্রস্থ। এছাড়া আরো স্বাক্ষ্য দিয়েছেন বিআইডব্লিউটিসি’র পিএস মাহমুদের ৬ জন স্টাফ। যারা সাক্ষ্য দেন তারা হচ্ছেন দুর্ঘটনায় আহত বাগেরহাটের স্কুল মাস্টার খায়রুল বাসার, পিএস মাহাসুদের মাস্টার ইনচার্জ ইদ্রিস হোসেন, সহকারী মাস্টার ইনচার্জ জয়নাল আবেদিন, সুকানি মাহাবুবুর রহমান, ইঞ্জিন ইনচার্জ আবদুল হামিদ, সহকারী ইঞ্জিন ইনচার্জ মো. শাহীন, বিআইডব্লিউটিএ এর পাইলট মো. শরীফ। জানা গেছে, গত ৪ জুলাই সকালে কীর্তনখোলা নদীর চরবাড়িয়া পয়েন্টে যাত্রিবিহীন বরিশাল থেকে ঢাকাগামী সুরভী-৭ লঞ্চের আঘাতে ঢাকা থেকে যাত্রী নিয়ে বরিশাল হয়ে মোড়েলগঞ্জ গামী স্টিমার পিএস মাহাসুদের একাংশ বিধস্ত হয়। এই ঘটনায় ৫ যাত্রী নিহত, প্রায় ১০ জন আহত হলে ঐদিনই তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। কিন্তু কমিটি গঠনের ৩৬ দিন পর তদন্ত কমিটি বরিশাল আসায় ও গণশুনানীতে স্বাক্ষ্য দিতে ক্ষতিগ্রস্থরা না আসায় তদন্ত প্রশ্নবদ্ধ হবে বলে আশংকা করেন নৌ সেক্টরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বিআইডব্লিউটিএ’র বন্দর কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, তদন্ত কমিটির ঐই দলটি দুপুরে দুর্ঘটনা কবলিত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এছাড়াও এর আগে সকাল থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত নগরীর সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে গনশুনানী অনুষ্ঠিত হয়। এসময়  দুর্ঘটনায় প্রত্যক্ষদর্শী ও পিএস মাহসুদের কর্মচারীসহ মোট সাত জনের স্বাক্ষ্য গ্রহন করা হয়। তদন্ত প্রতিনিধিদল গতকাল মঙ্গলবার দুর্ঘটনা কবলিত জাহাজটি পরিদর্শণ করেন। এসময় কমিটির সদস্য সচিব ক্যা্েপ্টন কে এম জসিমউদ্দিন বলেন, গন শুনানির প্রচার করেন জেলা প্রশাসক, কেন সাক্ষ্য দিতে লোক কম হয়েছে তা বলতে পারব না। সুরভী লঞ্চের স্বাক্ষ্য না দেয়া প্রসঙ্গে বলেন তারা ঢাকায় স্বাক্ষ্য দিবে। কম লোক হওয়ার কারণ সম্পর্কে বরিশাল জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আবুল কালাম আজাদ বলেন, তারা ২ দিন মাইকে ঘোষনা দিয়েছিন। এছাড়া নোটিশ বোর্ডে ও কেবল নেটওয়ার্কে দেয়া হয়েছে। স্বাক্ষ্য দিতে মানুষের আগ্রহ কম বিধায় এরকম হয়েছে। [fbcomments url="http://barisalmail24.com/archives/13127" count="on" num="5" countmsg="Comments!"]
 বরিশাল মেইল২৪.কম

স্টীমার-লঞ্চের সংঘর্ষের ৩৬ দিন পর তদন্ত কমিটি বরিশালে

Tuesday, August 9, 2016 12:04 pm

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিআইডব্লিউটিসি’র পিএস মাহসুদ ও এমভি সুরভী-৭ লঞ্চের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনার ৩৬ দিন পর ঘটনার তদন্তে বরিশালে এসেছেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয়ের তদন্ত কমিটি। গতকাল মঙ্গলবার মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব ও তদন্ত কমিটির আহবায়ক মো. নূর-উর-রহমানের নেতৃত্বে ৭ সদস্যের তদন্ত টিম বরিশাল সার্কিট হাউজে গণশুনানীর আয়োজন করে। তবে প্রচার প্রচারণার অভাবে স্বাক্ষ্য দিয়েছেন মাত্র একজন ক্ষতিগ্রস্থ। এছাড়া আরো স্বাক্ষ্য দিয়েছেন বিআইডব্লিউটিসি’র পিএস মাহমুদের ৬ জন স্টাফ।

যারা সাক্ষ্য দেন তারা হচ্ছেন দুর্ঘটনায় আহত বাগেরহাটের স্কুল মাস্টার খায়রুল বাসার, পিএস মাহাসুদের মাস্টার ইনচার্জ ইদ্রিস হোসেন, সহকারী মাস্টার ইনচার্জ জয়নাল আবেদিন, সুকানি মাহাবুবুর রহমান, ইঞ্জিন ইনচার্জ আবদুল হামিদ, সহকারী ইঞ্জিন ইনচার্জ মো. শাহীন, বিআইডব্লিউটিএ এর পাইলট মো. শরীফ।

জানা গেছে, গত ৪ জুলাই সকালে কীর্তনখোলা নদীর চরবাড়িয়া পয়েন্টে যাত্রিবিহীন বরিশাল থেকে ঢাকাগামী সুরভী-৭ লঞ্চের আঘাতে ঢাকা থেকে যাত্রী নিয়ে বরিশাল হয়ে মোড়েলগঞ্জ গামী স্টিমার পিএস মাহাসুদের একাংশ বিধস্ত হয়। এই ঘটনায় ৫ যাত্রী নিহত, প্রায় ১০ জন আহত হলে ঐদিনই তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। কিন্তু কমিটি গঠনের ৩৬ দিন পর তদন্ত কমিটি বরিশাল আসায় ও গণশুনানীতে স্বাক্ষ্য দিতে ক্ষতিগ্রস্থরা না আসায় তদন্ত প্রশ্নবদ্ধ হবে বলে আশংকা করেন নৌ সেক্টরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

বিআইডব্লিউটিএ’র বন্দর কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, তদন্ত কমিটির ঐই দলটি দুপুরে দুর্ঘটনা কবলিত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এছাড়াও এর আগে সকাল থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত নগরীর সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে গনশুনানী অনুষ্ঠিত হয়। এসময়  দুর্ঘটনায় প্রত্যক্ষদর্শী ও পিএস মাহসুদের কর্মচারীসহ মোট সাত জনের স্বাক্ষ্য গ্রহন করা হয়।

তদন্ত প্রতিনিধিদল গতকাল মঙ্গলবার দুর্ঘটনা কবলিত জাহাজটি পরিদর্শণ করেন। এসময় কমিটির সদস্য সচিব ক্যা্েপ্টন কে এম জসিমউদ্দিন বলেন, গন শুনানির প্রচার করেন জেলা প্রশাসক, কেন সাক্ষ্য দিতে লোক কম হয়েছে তা বলতে পারব না। সুরভী লঞ্চের স্বাক্ষ্য না দেয়া প্রসঙ্গে বলেন তারা ঢাকায় স্বাক্ষ্য দিবে। কম লোক হওয়ার কারণ সম্পর্কে বরিশাল জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আবুল কালাম আজাদ বলেন, তারা ২ দিন মাইকে ঘোষনা দিয়েছিন। এছাড়া নোটিশ বোর্ডে ও কেবল নেটওয়ার্কে দেয়া হয়েছে। স্বাক্ষ্য দিতে মানুষের আগ্রহ কম বিধায় এরকম হয়েছে।

সম্পাদকঃ মোঃ জিহাদ রানা।
গির্জ্জা মহল্লা,বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭৫৭৮০৭৩৮৩
ইমেইল : barisalmail24@gmail.com
বরিশালের একটি ২৪/৭ অনলাইন নিউজ মিডিয়া।