, , ,
h9090
ব্রেকিং নিউজ
  • বরিশালে বিএনপি’র মিছিলে পুলিশের বাধা
  • বরিশালে শিক্ষকদের প্রতিবাদ সভা
  • হিজলায় এক রাতে তিন ঘরে ডাকাতি
  • উজিরপুরে সন্ধ্যা নদীতে ৩ লক্ষাধীক টাকার অবৈধ জাল আটক
  • বাকেরগঞ্জে ইয়াবাসহ আটক -১

Notice: Undefined variable: dexc in /home/barisalmail24/public_html/wp-content/themes/newspaper.bak/inc/retrive_functions.php on line 279

Notice: Undefined variable: cexc in /home/barisalmail24/public_html/wp-content/themes/newspaper.bak/inc/retrive_functions.php on line 282
Add
Tuesday, July 12, 2016 11:54 am
A- A A+ Print

বিশেষ অভিযানের নামে হয়রানির অভিযোগে নলছিটি থানার এসআই আব্দুর রহিম ক্লোজড

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ ফাও সিগারেট না দেয়ায় প্রতিবন্ধী দোকানদার ইলিয়াস হোসেন,ফাও তরকারী না দেয়ায় যুবলীগের কর্মী গোলাম মোস্তফা ও ঘুষ না দেয়ায় থানা জামে মসজিদ কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কাম ক্যাশিয়ার কামাল হোসেনকে আক্রোশ মূলকভাবে আটক করে হয়রানি,শারীরিকভাবে নির্যাতন ও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে নলছিটি থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আব্দুর রহিমকে ঝালকাঠী পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। ১১ জুলাই ঝালকাঠী পুলিশ সুপারের অফিস থেকে জারিকৃত এক আদেশে তাকে ওইদিন বিকাল ৪টার মধ্যে ঝালকাঠী পুলিশ লাইনে যোগদান করতে বলা হয়। জানা গেছে,নলছিটি শহরের থানা সড়কের হাসপাতাল রোডের সম্মুখে পান-সিগারেটের দোকানদার শারিরীক প্রতিবন্ধী যুবক ইলিয়াস হোসেন, বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতাকারী নলছিটি থানা মসজিদের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কাম ক্যাশিয়ার মাওলানা কামাল হোসেন ও যুবলীগের কর্মী নলছিটি শহরের তরকারী ব্যবসায়ী গোলাম মোস্তফাকে বিশেষ অভিযানের নামে এসআই আব্দুর রহিম আটক করে। আটকের পর তাদের উপর নির্যাতন চালায় এবং মোটা অংকের ঘুষ দাবি করে। পরে আদালতের মাধ্যমে জামিন লাভের পর বরিশালের ডিআইজি ও ঝালকাঠীর পুলিশ সুপারের নিকট তার বিরুদ্ধে( এসআই আব্দুর রহিম) হয়রানি,শারীরিক নির্যাতন ও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ দায়ের করেন ওই তিন ব্যক্তি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ১০ জুলাই ঝালকাঠীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহম্মদ রকিব অভিযুক্ত এসআই আব্দুর রহিমের বিরুদ্ধে দরখাস্তকারী ও স্বাক্ষীদের জবানবন্দী গ্রহণ করেন। এরপর ১১জুলাই আব্দুর রহিমকে ঝালকাঠী পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে বলে জানা গেছে। একাধিক ভুক্তভোগী সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, এসআই রহিম নলছিটি থানায় যোগদানের পর থেকেই বিভিন্ন দোকান থেকে সিগারেটসহ বিভিন্ন মালামাল,বাজারে গিয়ে মাছ ও কাচামাল ত্রুয় করে টাকা না দিয়ে চলে যায়। কেহ টাকা চাইলে তাকে ধমক দিয়ে থানায় ধরে নিয়ে বিভিন্ন মামলায় চালান দেওয়ার হুমকি দেয়। এছাড়াও বিভিন্ন মামলার তদন্তকালীন সময় বাদী ও আসামী উভয়ের নিকট থেকে ঘুষ গ্রহণের ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে এসআই রহিমের বিরুদ্ধে। তবে ১০ জুলাই ঝালকাঠীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নিকট এস আই আব্দুর রহিমের দোকান থেকে মালামাল নিয়ে টাকা না দেয়ার বিষয়টি জানানো হলে ওই দিন বিকেলে অনেক দোকানদারকে টাকা রহিম পরিশোধ করেছেন বলে জানা গেছে। এদিকে নলছিটির আলোচিত ও সমালোচিত এসআই আব্দুর রহিমকে ক্লোজড করার সংবাদে নলছিটির বিভিন্ন মহলে স্বস্তি ও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের আনন্দ উল্লাস করতে দেখা গেছে। [fbcomments url="http://barisalmail24.com/archives/13016" count="on" num="5" countmsg="Comments!"]
 বরিশাল মেইল২৪.কম

বিশেষ অভিযানের নামে হয়রানির অভিযোগে নলছিটি থানার এসআই আব্দুর রহিম ক্লোজড

Tuesday, July 12, 2016 11:54 am

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ
ফাও সিগারেট না দেয়ায় প্রতিবন্ধী দোকানদার ইলিয়াস হোসেন,ফাও তরকারী না দেয়ায় যুবলীগের কর্মী গোলাম মোস্তফা ও ঘুষ না দেয়ায় থানা জামে মসজিদ কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কাম ক্যাশিয়ার কামাল হোসেনকে আক্রোশ মূলকভাবে আটক করে হয়রানি,শারীরিকভাবে নির্যাতন ও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে নলছিটি থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আব্দুর রহিমকে ঝালকাঠী পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। ১১ জুলাই ঝালকাঠী পুলিশ সুপারের অফিস থেকে জারিকৃত এক আদেশে তাকে ওইদিন বিকাল ৪টার মধ্যে ঝালকাঠী পুলিশ লাইনে যোগদান করতে বলা হয়। জানা গেছে,নলছিটি শহরের থানা সড়কের হাসপাতাল রোডের সম্মুখে পান-সিগারেটের দোকানদার শারিরীক প্রতিবন্ধী যুবক ইলিয়াস হোসেন, বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতাকারী নলছিটি থানা মসজিদের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কাম ক্যাশিয়ার মাওলানা কামাল হোসেন ও যুবলীগের কর্মী নলছিটি শহরের তরকারী ব্যবসায়ী গোলাম মোস্তফাকে বিশেষ অভিযানের নামে এসআই আব্দুর রহিম আটক করে। আটকের পর তাদের উপর নির্যাতন চালায় এবং মোটা অংকের ঘুষ দাবি করে। পরে আদালতের মাধ্যমে জামিন লাভের পর বরিশালের ডিআইজি ও ঝালকাঠীর পুলিশ সুপারের নিকট তার বিরুদ্ধে( এসআই আব্দুর রহিম) হয়রানি,শারীরিক নির্যাতন ও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ দায়ের করেন ওই তিন ব্যক্তি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ১০ জুলাই ঝালকাঠীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহম্মদ রকিব অভিযুক্ত এসআই আব্দুর রহিমের বিরুদ্ধে দরখাস্তকারী ও স্বাক্ষীদের জবানবন্দী গ্রহণ করেন। এরপর ১১জুলাই আব্দুর রহিমকে ঝালকাঠী পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে বলে জানা গেছে। একাধিক ভুক্তভোগী সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, এসআই রহিম নলছিটি থানায় যোগদানের পর থেকেই বিভিন্ন দোকান থেকে সিগারেটসহ বিভিন্ন মালামাল,বাজারে গিয়ে মাছ ও কাচামাল ত্রুয় করে টাকা না দিয়ে চলে যায়। কেহ টাকা চাইলে তাকে ধমক দিয়ে থানায় ধরে নিয়ে বিভিন্ন মামলায় চালান দেওয়ার হুমকি দেয়। এছাড়াও বিভিন্ন মামলার তদন্তকালীন সময় বাদী ও আসামী উভয়ের নিকট থেকে ঘুষ গ্রহণের ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে এসআই রহিমের বিরুদ্ধে। তবে ১০ জুলাই ঝালকাঠীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নিকট এস আই আব্দুর রহিমের দোকান থেকে মালামাল নিয়ে টাকা না দেয়ার বিষয়টি জানানো হলে ওই দিন বিকেলে অনেক দোকানদারকে টাকা রহিম পরিশোধ করেছেন বলে জানা গেছে। এদিকে নলছিটির আলোচিত ও সমালোচিত এসআই আব্দুর রহিমকে ক্লোজড করার সংবাদে নলছিটির বিভিন্ন মহলে স্বস্তি ও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের আনন্দ উল্লাস করতে দেখা গেছে।

সম্পাদকঃ মোঃ জিহাদ রানা।
গির্জ্জা মহল্লা,বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭৫৭৮০৭৩৮৩
ইমেইল : barisalmail24@gmail.com
বরিশালের একটি ২৪/৭ অনলাইন নিউজ মিডিয়া।